আলোচিত সংবাদ
সত্যের কথা বলে

ভারতে করোনায় আক্রান্ত ৬ কোটির বেশি : জরিপ

ভারতে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা সরকারিভাবে যা দেয়া হচ্ছে, প্রকৃত সংখ্যা তার ১০ গুণ বেশি বলে দেশটির শীর্ষ এক মহামারিবিষয়ক গবেষণা সংস্থার জরিপে উঠে এসেছে। দেশটির ২১টি রাজ্যের ২৯ হাজারের বেশি মানুষের অ্যান্টিবডি পরীক্ষায় করোনার বিস্তার সম্পর্কে নতুন এই ধারণা পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে সংস্থাটি।

দেশটির সরকারি মেডিক্যাল গবেষণা সংস্থা ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিকেল রিসার্চ (আইসিএমআর) বলছে, ভারতে ইতোমধ্যে নভেল করোনাভাইরাসে ৬ কোটিরও বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়ে থাকতে পারেন; যা সরকারি পরিসংখ্যানের ১০ গুণ।

সরকারি তথ্য অনুযায়ী, ১৩০ কোটি মানুষের দেশ ভারতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৬২ লাখের বেশি। আক্রান্তের সংখ্যায় বিশ্বে ভারতের ওপরে আছে যুক্তরাষ্ট্র। ভারতে এই ভাইরাসে আক্রান্ত প্রায় এক লাখ মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে।

তবে দেশটিতে কতসংখ্যক মানুষ এই ভাইরাসের সংস্পর্শে এসেছেন তা জানতে ২১টি রাজ্যের ২৯ হাজার মানুষের রক্তের নমুনা পরীক্ষা করে দেখেছে আইসিএমআর। সরকারি এই প্রতিষ্ঠান বলছে, করোনায় আক্রান্তের প্রকৃত চিত্র সরকারি পরিসংখ্যানের চেয়ে অনেক বেশি হতে পারে।

আইসিএমআরের মহাপরিচালক বলরাম ভারগভ বলেছেন, এই জরিপে দেখা গেছে- ভারতে আগস্টেই দশ বছরের ঊর্ধ্বের বয়সীদের প্রতি ১৫ জনের মধ্যে একজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

জরিপে দেখা গেছে, গ্রামীণ এলাকার তুলনায় আগস্টে শহর এবং শহরের বস্তিগুলোতে করোনায় আক্রান্তের হার তুলনামূলক বেশি। শহরের বস্তি এলাকায় ১৫ দশমিক ৬ শতাংশ, শহরে ৮ দশমিক ৬ শতাংশ মানুষের শরীরে করোনার অ্যান্টিবডি মিলেছে। অন্যদিকে, প্রত্যন্ত গ্রামীণ এলাকায় আক্রান্তের এই হার মাত্র ৪ দশমিক ৪ শতাংশ।

আগস্টের মাঝামাঝি সময় থেকে সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি পর্যন্ত দেশটির ২১টি রাজ্য এবং ভূখণ্ডের ২৯ হাজারের বেশি মানুষের রক্তের নমুনা পরীক্ষা করে এসব তথ্য পেয়েছে আইসিএমআর।

গত মে মাসে দেশটির সরকারি এই প্রতিষ্ঠান প্রথম একটি সেরো সার্ভে পরিচালনা করেছিল। সেই সময় ভারতে প্রায় ৬০ লাখ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়ে থাকতে পারেন বলে জরিপে আভাষ পাওয়ার তথ্য জানানো হয়।

সূত্র : এএফপি।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.