আলোচিত সংবাদ
সত্যের কথা বলে

ফেসবুক ওয়ালে কালো প্রতীক ব্যবহার করে ধর্ষণের প্রতিবাদ

ঘোর অমানিশা। এমন আঁধার দেখেনি পৃথিবী। ধর্ষিতার গগনবিদারী চিৎকারে নিভে গেছে সমস্ত আলো। এখন আঁধারে বাঁচো। আঁধারে ডুবেই জ্বালো দ্রোহের মশাল। আঁধার মেখেই হোক প্রতিবাদ, সকল আঁধারের বিরুদ্ধে। আলো আসবেই।

আলোর আশাতেই মানুষ আজ প্রতিবাদী। দুর্বলের ওপর সবলের যে জুলুম, তার বিরুদ্ধে মাঠে নেমেছে বিবেকবান মানুষ। নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে সম্ভ্রম হারানো নারীর জন্য কাঁদছে মানুষ, কাঁদছে দেশ। সভ্যতার এমন লগ্নে এ কেমন বর্বরতা! এ কেমন পাশবিকতা! আর ধর্ষণের ঘটনা চাপা পড়ছে, আরেকটি ধর্ষণ দিয়ে। তাও আবার বর্বরতার ভিন্ন ভিন্ন রূপে।

যেন দম বন্ধ হয়ে আসার সময় এখন। মাটি নীলাভ হচ্ছে ধর্ষিতার রক্তে। বাতাস ভারি হচ্ছে, ধর্ষিতার হাহাকারে। মানুষ মুক্তি চায়। মুক্তির জন্য প্রতিবাদের ভাষাও বদলায়।

এমনই বদলে যাওয়া প্রতিবাদ ‘ঘোর অন্ধকার’ বা কালো চিহ্ন ধারণ করা। এর এই প্রতিবাদী চিহ্নই এখন ভাইরাল নেট দুনিয়ায়। নোয়াখালী বেগমগঞ্জের নির্যাতিত নারীর পাশে দাঁড়িয়েছে মানুষ শোকের প্রতীক ‘কালো’ ধারণ করে।

গত সোমবার রাত থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কালো প্রতীকটি ব্যবহার করে অনেকে ধর্ষণের প্রতিবাদ করতে থাকে। একদিনের ব্যবধানেই অভিনব এই প্রতিবাদের প্রতীক ভাইরাল হতে দেখা যায়। অনেকে তার ফেসবুকে ওয়ালে প্রতীকটি ব্যবহার করেন। অনেকেই আবার প্রোফাইল করেন।

আইলা সমাজ কল্যাণ সংগঠনের সভাপতি এলিনা ফিরোজ তার ফেসবুক ওয়ালে কালো প্রতীক ব্যবহার করে ধর্ষণের প্রতিবাদ করেছেন।

আলোচিত সংবাদকে কাছে মন্তব্য করতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘প্রতিবাদ জানানোর আর ভাষা নেই। সময় তো আঁধারে ডুবে গেছে। করোনা মহামারিকালে ধর্ষণের যে মহামারি শুরু হয়েছে, তাতে মুক্তির কোনো পথ আছে বলে জানা নেই। নারীর জন্য সমস্ত পথ আটকে যাচ্ছে। পাহাড়-সমতলে সব জায়গাতেই নারী ধর্ষিত হচ্ছে। আঁধারে ডুবেই আলোর জন্য অপেক্ষা করছি’।

© আলোচিত সংবাদ ।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.