আলোচিত সংবাদ
সত্যের কথা বলে

ফেসবুকে অস্ত্র হাতে ছবি, আলোচনায় এমপি বাবলু

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে আগ্নেয়াস্ত্র হাতে ছবির পোজ দিয়ে সমালোচিত হয়েছেন বগুড়া-৭ (গাবতলী-শাজাহানপুর) আসনের সংসদ সদস্য রেজাউল করিম বাবলু। শুক্রবার ছবিটি ছড়িয়ে পড়লে আলোচনা-সমালোচনা শুরু হয়। একজন এমপির অস্ত্র প্রদর্শনের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রদর্শন অত্যন্ত অশোভন ও হীন অভিব্যক্তির প্রতিফলন বলে মতপ্রকাশ করেন অনেকে।

বগুড়ার নন্দীগ্রামের এবি বারিক নামের এক ব্যক্তি তার ফেসবুক বলেন, ‘হঠাৎ এমপি তাই, এর বিচার চাই।’

বগুড়ার সিনিয়র সাংবাদিক চপল সাহা লিখেছেন, ‘একজন সংসদ সদস্যের কেনা অস্ত্র প্রদর্শন কতটা শোভনীয়? ২০১৮ সালের ডিসেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত একাদশ সংসদ নির্বাচনে বগুড়া-৭ আসনে বিএনপির প্রার্থী না থাকায় হঠাৎ করেই রেজাউল করিম বাবলুকে সমর্থন দেয়া হয়। ফলে তিনি হয়ে যান সংসদ সদস্য। তিনি একটি অস্ত্র কিনেছেন তার নিজের সুরক্ষার জন্য। এই অস্ত্রটি তিনি ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছেন। একজন সংসদ সদস্যর জন্য জানা উচিত অস্ত্র প্রদর্শন করা আইনত অপরাধ। তাহলে তিনি কি…?’

তবে সংসদ সদস্য রেজাউল করিম দাবি করেছেন, নিরাপত্তার জন্যই তিনি অস্ত্রের লাইসেন্স নিয়েছেন। সপ্তাহখানেক আগে ঢাকার একটি অস্ত্রের দোকান থেকে তিনি ৮০ হাজার টাকায় একটি বিদেশি পিস্তল কিনেছেন। দোকানে বসে পিস্তল নাড়াচাড়া করার সময় তার সঙ্গে থাকা কোনো কর্মী মুঠোফোনে ছবি তুলে তা তাদের ফেসবুক ওয়ালে আপলোড দিয়েছেন।

তিনি বলেন, লাইসেন্স করা বৈধ অস্ত্রের ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আপলোড দিতে আইনি কোনো বাধা নেই। তার সঙ্গে থাকা কোনো কর্মী তাকে না বলেই ফেসবুকে দিয়েছেন। রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ আর তাকে অপছন্দ করা কিছু সাংবাদিক এই ছবি ভাইরাল করে নানা অপপ্রচার চালাচ্ছেন।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.