আলোচিত সংবাদ
সত্যের কথা বলে

যুদ্ধের প্রস্তুতি নিতে বললেন চীনের প্রেসিডেন্ট

দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশ গুয়াংডংয়ের একটি সামরিক ঘাঁটি পরিদর্শনকালে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং সেনাবাহিনীকে ‘যুদ্ধের প্রস্তুতির জন্য সবার (তাদের) মন এবং শক্তি প্রয়োগ’ নিবিষ্ট করার আহ্বান জানিয়েছেন। শতভাগ বিশ্বাসযোগ্যতায় দেশের অনুগত হয়ে কাজ করার জন্য সেনাদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

দেশটির রাষ্ট্রায়ত্ত বার্তা সংস্থা সিনহুয়া জানিয়েছে মঙ্গলবার গুয়াংডংয়ের চ্যাওঝু শহরে পিপলস লিবারেশন আর্মির মেরিন কোরের ঘাঁটি পরিদর্শনকালে শি দেশের সেনাবাহিনীকে সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় থাকার নির্দেশ দিয়ে বলেন, তারা যেন শতভাত অনুগত, শতভাগ সততা এবং শতভাগ বিশ্বাসযোগ্যতার সঙ্গে কাজ করে।

শির গুয়াংডং সফরের মূল উদ্দেশ্য ছিল বুধবার শেনজেন বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলের ৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে একটি ভাষণ দেওয়া। বিদেশী মূলধন আকর্ষণ করার জন্য ১৯৮০ প্রতিষ্ঠিত এই অর্থনৈতিক অঞ্চল চীনের অর্থনীতি বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম হয়ে উঠতে সহায়তা করার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে।

কিন্তু সিএনএন অনলাইন প্রতিবেদনে লিখেছে, শি জিনপিং এমন সময়ে এই সামরিক সফর করলেন যখন চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে কয়েক দশকের মধ্যে সর্বোচ্চ উত্তেজনা চলছে। এ ছাড়া তাইওয়ান এবং করোনাভাইরাস মহামারি নিয়ে দ্বিমত পোষণ করে ওয়াশিংটন ও বেইজিংয়ের মধ্যে তীব্র এই বিভেদ দিন দিন বাড়ছেই।

তাইওয়ানের কাছে তিনটি অত্যাধুনিক অস্ত্রব্যবস্থা বিক্রির পরিকল্পনার কথা সোমবার মার্কিন কংগ্রেসকে জানিয়েছে হোয়াইট হাউস। এর মধ্যে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন আর্টিলারি রকেট সিস্টেমও (হিমারস) রয়েছে।

তীব্র প্রতিক্রিয়ায় চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান তাইওয়ানের কাছে অস্ত্র বিক্রির পরিকল্পনা অবিলম্বে বাতিল ও সমস্ত মার্কিন-তাইওয়ান সামরিক সম্পর্ক ছিন্ন করতে ওয়াশিংটনের প্রতি আহ্বান জানান।

তাইওয়ান কখনো চীনের ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টি দ্বারা নিয়ন্ত্রিত না হলেও বেইজিং স্ব-শাসিত এই দ্বীপটিকে তাদের ভূখণ্ডের একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ বলে দাবি করে এবং শি সামরিক হস্তক্ষেপ করার হুমকিও দিয়েছেন।

 

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.