আলোচিত সংবাদ
সত্যের কথা বলে

হাঁড়ি বিক্রি করে সংসার চলছে জাতীয় গেমসে পদকজয়ী তরুণীর

করোনা সংকটে বিশ্বের বহু মানুষ। কারও চাকরি চলে গেছে, কেউ নতুন চাকরির চেষ্টা করছিলেন, কিন্তু পাননি। কারও আবার দু’বেলা অন্ন যোগাড় হচ্ছে না।

আধপেট, একবেলা খেয়েই দিন চালিয়ে যাচ্ছেন অনেকে। প্রত্যেকদিনই এ রকম একাধিক ঘটনা সামনে আসছে। আর এবার প্রকাশ্যে এলো ঝাড়খণ্ডের এক ক্যারাটে খেলোয়াড়ের খবর।

সরকারি চাকরির আশ্বাস পেলেও করোনা পরিস্থিতিতে সেই চাকরি এখনও পাননি রাঁচির বিমলা মুণ্ডা। পেট চালাতে তাই হাঁড়ি বিক্রি করছেন তিনি। শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি।

শেষপর্যন্ত সোশ্যাল মিডিয়ায় তার খবর ভাইরাল হতেই নড়েচড়ে বড়লো ঝাড়খণ্ড সরকার। ইতোমধ্যে মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন ব্যবস্থা নিতেও নির্দেশ দিয়েছেন।

২০১১ সালে ৩৪তম জাতীয় গেমসে রাজ্যের হয়ে রূপা জিতেছিলেন বিমলা। এছাড়া ২০১২ সালে বলিউড অভিনেতা অক্ষয় কুমার আয়োজিত চতুর্থ আন্তর্জাতিক কুডো চ্যাম্পিয়নশিপে সোনাও জিতেছিলেন।

পরবর্তীতে রাজ্য সরকার যে ৩৩ জন খেলোয়াড়কে চাকরির প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল তাতে নামও ছিল বিমলার। কিন্তু ফেব্রুয়ারি মাসে যাবতীয় নথিপত্রের কাজ হয়ে গেলেও চাকরিতে যোগদানের চিঠি আসেনি।

এদিকে, করোনা আবহে যে কোচিং সেন্টারটি চালাচ্ছিলেন সেটিও বন্ধ করতে হয়। ফলে পেট চালাতে বাড়িতেই ভাত পচিয়ে হাঁড়ি তৈরি করে তা বিক্রি করতে শুরু করেন।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.