আলোচিত সংবাদ
সত্যের কথা বলে

টুর্নামেন্টের সামগ্রিক পারফরমেন্স নিয়ে চিন্তিত নন আকরাম

করোনা কেড়ে নিয়েছে সাড়ে ছয় থেকে সাত মাস। দীর্ঘদিন পর আবার ক্রিকেটাররা ব্যাট ও বল হাতে মাঠে। প্রেসিডেন্টস কাপ দিয়েই আবার মাঠে ফেরা মুশফিক, তামিম, রিয়াদ, লিটন, সৌম্য, শান্ত, রুবেল, তাসকিন, মোস্তাফিজ, সাইফউদ্দীনরা।

কেমন খেললেন ক্রিকেটাররা? তা নিয়ে চলছে আলোচনা-পর্যালোচনা। তবে কম বেশি সবাই একমত, মাঠের ক্রিকেট জমেনি তেমন। প্রেসিডেন্টস কাপে ব্যাটসম্যানদের চেয়ে বোলাররা বিশেষ করে পেসাররাই ভাল করেছেন। তারাই সর্বাধিক সমীহ আদায় করে নিয়েছেন। যে কারণে হাই স্কোরিং গেম হয়নি একটিও।

বিসিবি পরিচালক ও ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটি চেয়ারম্যান আকরাম খানও তাই মনে করেন। তার মূল্যায়ন, ক্রিকেটাররা অনেকদিন পর মাঠে ফিরেছে। কাজেই একটু পারফরমেন্সের গ্রাফ হয়তো তত ওপরে ওঠেনি। পারফরমেন্স নিয়ে কথা বলতে গিয়ে আকরাম জানান, ‘স্বাভাবিক, অনেক দিন পর মাঠে এসেছে খেলোয়াড়েরা, সবাই যে পারফর্ম করবে তাতো না।’

তবে আকরামের চোখে ইতিবাচক বিষয় হল, ‘কিছু তরুণ খেলোয়াড় রান করেছে, উইকেট নিয়েছে। এর সাথে সিনিয়র দুই একজনও ভালো করেছে। এটা আশা করি তারা যত খেলবে ফর্মে চলে আসবে।’

 

আকরাম খানের সবচেয়ে ভালো লেগেছে তাসকিনের ফিরে আসা দেখে। তার ভাষায়, ‘তাসকিন ইনজুরিতে ছিল, সেখান থকে ফিরে এসে ভালো বল করেছে। রুবেলও ভালো করেছে।’

আকরামের চোখে, ‘সবচেয়ে সন্তুষ্টির জায়গা হলো ক্রিকেটারদের মাঠে ফিরিয়ে আনা। আমাদের কাছে যেটা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হল আমরা সবাইকে মাঠে ফিরিয়েছি, এটা ইতিবাচক দিক। পারফরম্যান্সের যেটা সেটা হল এতদিন পর মাঠে ফিরে পারফর্ম করাটা কঠিন। মানিয়ে নিতে একটু সময় লাগছে, এটা নিয়ে আমরা চিন্তিত না।’

আকরাম খানের শেষ কথা হলো, পারফরমেন্স নয়, প্রেসিডেন্ট কাপের আয়োজনই ছিল মুখ্য। এ আয়োজনকে সফল মানতে চান আকরাম।

তার চোখ এখন ঘরোয়া ক্রিকেট অনুষ্ঠান ছাপিয়ে আন্তর্জাতিক সিরিজ আয়োজনের দিকে। তাই মুখে এমন কথা, ‘আমরা বলতে পারি আল্লাহর রহমতে বেশ ভালোভাবে এটা আয়োজন করতে পেরেছি। মাননীয় প্রেসিডেন্টকে ধন্যবাদ দিতে হবে, উনি সাহস না দিলে হয়তোবা এগোতে পারতাম না। এরপর আমাদের একটা টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট হওয়ার কথা আছে। এসবের পর ঘরোয়া লিগ ফেরানোর চিন্তা ভাবনা করছি। এসব সফলভাবে আয়োজন করলে আমার মনে হয়না আন্তর্জাতিক সিরিজ আয়োজনে সমস্যা হবে।’

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.