আলোচিত সংবাদ
সত্যের কথা বলে

পুলিশ গ্রেফতারের ক্রেডিট নিতে মরিয়া!

সিলেটে রায়হান হত্যার প্রধান আসামি এসআই আকবর হোসেনকে (বরখাস্ত) ভারতীয় খাসিয়াদের সহযোগিতায় গ্রেফতার করেছে পুলিশ। খাসিয়াদের তাকে আটকের কয়েকটি ভিডিও ফেসবুকে ভাইরালও হয়েছে। কারা, কীভাবে কোন অবস্থায় আকবরকে ধরেছে তা ভিডিও’তে দেখা যায়। পরিচয় গোপন রাখতে এদের মধ্যে কয়েকজনের মুখও বাঁধা দেখা গেছে। তবে জেলা পুলিশ এসআই আকবর গ্রেফতারের ক্রেডিট দাবি করেছেন নিজেরাই।

সোমবার (৯ নভেম্বর) আকবর গ্রেফতারের বিষয় জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন প্রেস ব্রিফিংয় করেন। এসময় তিনি বলেন, ‘আকবর সীমান্ত এলাকা দিয়ে পালিয়ে যেতে পারে এরকম তথ্য পুলিশের কাছে ছিল। তথ্যটি আমরা রবিবার (৮ নভেম্বর) পাওয়ার পরপরই অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করেছিলাম। সেইসঙ্গে অভিযানকারী দলের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল সিলেটের কানাইঘাট ও জকিগঞ্জ থানার ওসিকে। যেহেতু ওই দু’টি থানায় সীমান্ত এলাকায়। পুলিশের কিছু ঘনিষ্ঠ বন্ধুর মাধ্যমে আকবরকে কানাইঘাটের ডোনা সীমান্ত এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়।’

পুলিশের আইজি ড. বেনজীর আহমেদের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘স্যারের প্রত্যক্ষ নির্দেশ ছিল এ বিষয়ে। এছাড়া সিলেট রেঞ্জ ডিআইজি স্যারও সার্বক্ষণিক এই বিষয়ে পরামর্শ ও নির্দেশনা দিয়েছিলেন।’

গ্রেফতারের পর আকবরকে নিয়ে যাচ্ছে পুলিশ

একটি ভিডিওতে দেখা গেছে ভারতের খাসিয়ারা তাকে আটক করেছে– এমন প্রশ্নে পুলিশ সুপার বলেন, ‘আমাদের পক্ষ থেকে কোনও ভিডিও করা হয়নি। এ ভিডিও কে, কোথায় করেছে তা জানা নেই। তবে আকবরকে জেলা পুলিশের কানাইঘাট থানা পুলিশ গ্রেফতার করেছে।’

পুলিশের কাছে কেউ হস্তান্তর করেছে কিনা– জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আকবরকে কেউ হস্তান্তর করেনি। পুলিশ তাকে ধরেছে। কিন্তু আমরা পুলিশের সব কাজে জনগণের সহযোগিতা পেয়ে আসছি। তাকে গ্রেফতারে আমাদের কিছু বন্ধু সহযোগিতা করেছে।’

স্থানীয়দের হাতে আকবরের আটক হওয়ার কয়েকটি ভিডিও ক্লিপ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। এসব ভিডিও’র একটিতে আকবরকে বসিয়ে রেখে হাত-পা বাঁধছিলেন স্থানীয়রা।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.