আলোচিত সংবাদ
সত্যের কথা বলে

করোনাকালে বিশ্বজুড়ে রেকর্ড সংখ্যক সাংবাদিক কারাবন্দি হয়েছে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে ২০২০ সালে বিশ্বজুড়ে রেকর্ড সংখ্যক সাংবাদিক কারাবন্দি হয়েছে। বিশেষ করে করোনা ভাইরাস মহামারি নিয়ে প্রকৃত তথ্য তুলে আনতে গিয়ে বা সরকারের প্রতি গণঅসন্তোষের খবর প্রকাশ করার কারণে সাংবাদিকদের প্রশাসনের বিরাগভাজন হতে হয়েছে।

- Advertisement -

সাংবাদিকদের সুরক্ষায় কাজ করা যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক পর্যবেক্ষক সংস্থা কমিটি টু প্রটেক্ট জার্নালিস্টস’ (সিপিজে)-এর এক প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়েছে।

সংস্থাটির অভিযোগ, করোনা মহামারিতে এই বছর দুনিয়া জুড়ে সরকারগুলো সংবাদমাধ্যম দমনের চেষ্টা করেছে। যার অংশ হিসেবেই সাংবাদিকদের কারাবরণ করতে হয়েছে। আবার ক্রমবর্ধমান ভুয়া তথ্যের মোকাবিলাও করতে হয়েছে তাদের।
নব্বই দশকের প্রথম থেকেই দুনিয়া জুড়ে নিপীড়িত সাংবাদিকদের তথ্য সংগ্রহ করে আসছে সিপিজে। নিউ ইয়র্ক ভিত্তিক এ সংগঠনটি মঙ্গলবার নতুন প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

সিপিজে’র ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিশ্বজুড়ে এই বছরের ১ ডিসেম্বর পর্যন্ত কারাবন্দি হয়েছে অন্তত ২৭৪ জন সাংবাদিক। যা সংস্থাটি রেকর্ড রাখা শুরুর পর থেকে এক বছরে সর্বোচ্চ সংখ্যক বন্দি হওয়ার রেকর্ড। যেখানে গত বছর ছিল ২৫০ জন।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কোভিড-১৯ মহামারির মধ্যে অনেক দেশের সরকার সাংবাদিকদের কারাগারে ঢুকিয়ে মহামারি নিয়ে খবর প্রকাশ নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেছে। নিরাপত্তা বাহিনীর হেফাজতে থাকা অবস্থায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে অন্তত দুই জন সাংবাদিক।

সিপিজে বলছে, বিক্ষোভ ও রাজনৈতিক উত্তেজনা নিয়ে খবর প্রকাশ করতে গিয়ে অনেক সাংবাদিককে এ বছর গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে যেতে হয়েছে। বেশিরভাগ গ্রেফতারের ঘটনা ঘটেছে চীন, তুরস্ক, মিসর ও সৌদি আরবে। সিপিজে’র নির্বাহী পরিচালক জোয়েল সিমন এক বিবৃতিতে বলেন, ‘বিশ্বজুড়ে মহামারি চলার মধ্যে রেকর্ড সংখ্যক সাংবাদিককে কারাগারে রাখার ঘটনা খুবই দুঃখজনক এবং ভয়াবহ আতঙ্কের বিষয়।’

এজন্য বিশ্বনেতাদের গণতান্ত্রিক মূল্যবোধকে সমুন্নত রাখার ইচ্ছার অভাবকে দায়ী করা হয়েছে সিপিজে’র প্রতিবেদনে। বিশেষ করে সংবাদমাধ্যমের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের আক্রমণাত্মক মনোভাবের ফলে এমনটা হয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়।

এ বছর বিশ্বজুড়ে ৩৪ জন সাংবাদিককে ‘মিথ্যা খবর’ প্রকাশের অভিযোগেও কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। গত বছর এ সংখ্যা ছিল ৩১। তবে যুক্তরাষ্ট্রে ১ ডিসেম্বর পর্যন্ত কোনও সাংবাদিক কারাগারে ছিলেন না। যদিও এবছর সেখানে ১১০ জন সাংবাদিককে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। তাদের বেশিরভাগই পুলিশের নৃশংসতার বিরুদ্ধে গণবিক্ষোভের খবর সংগ্রহ ও প্রকাশ করার কারণে গ্রেপ্তার হয়েছিলেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, এ বছর কারাগারে যাওয়া সাংবাদিকদের দুই-তৃতীয়াংশের বিরুদ্ধেই রাষ্ট্র-বিরোধী অপরাধের অভিযোগ আনা হয়েছে। বিশেষ করে সন্ত্রাসবাদী কর্মকান্ড বা নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠনের সঙ্গে সম্পর্ক রাখার ‘অপরাধে’ তাদেরকে অভিযুক্ত করা হয় এবং জেলে ঢোকানো হয়।

সূএ আল জাজিরা।বুধবার, ডিসেম্বর ১৬, ২০২০

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.