আলোচিত সংবাদ
সত্যের কথা বলে

মোবাইল কেনার টাকা চাওয়ায় ছেলেকে হত্যা, বাবার স্বীকারোক্তি

মোবাইল ফোন কেনার টাকা চাওয়ায় শ্বাসরোধ করে ছেলেকে হত্যার দুই মাস ২০ দিন পর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ঘাতক বাবা ও সৎমার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী  শাানিবার বিকেলে পুঁতে রাখা লাশটি ঢউদ্ধার করে পুলিশ। এদিকে, শনিবার সন্ধ্যায় ঘাতক বাবা ও সৎমা সাতক্ষীরার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম রেজোয়ানুজ্জামানের কাছে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়ে হত্যার দায় স্বীকার করেছেন।

নিহত ছেলের নাম আরিফ বিল্লাহ (১৭)। তার বাবা মো. ইমান আলী ও সৎমা জোহরা খাতুন কালিগঞ্জের চাম্পাফুল গ্রামে বসবাস করতেন।

কালিগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আজিজুর রহমান জানান, গত ২৫ জুন ছেলে আরিফ বিল্লাহ তার বাবার কাছে একটি মোবাইল ফোন কেনার জন্য টাকা চায়। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে বাবা ও সৎমা তাকে প্রথমে মারপিট এবং পরে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। ওই রাতেই তারা আরিফ বিল্লাহর লাশ বাড়ির পাশে মাটিচাপা দেন। পরের দিন প্রচার করে যে তাঁর ছেলে আরিফ বিল্লাহ পাগল হয়ে নিখোঁজ হয়ে গেছে।

এদিকে, ইমান আলীর প্রথম স্ত্রী খালেদা বেগম (আরিফ বিল্লাহর মা) তাঁর ছেলের নিখোঁজের বিষয়ে কালিগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। এই ডায়েরির সূত্র ধরে তদন্তে নামে পুলিশ। বিভিন্ন মহল থেকে খবর পায় আরিফ বিল্লাহকে হত্যা করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার গভীর রাতে ইমান আলী ও তাঁর দ্বিতীয় স্ত্রী জোহরাকে আটক করে। আজ শনিবার তারা স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিলে পুলিশ বিকেলে লাশটি তুলে ময়নাতদন্তের জন্য সাতক্ষীরা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

মুহিব |০৬-০৯-২০| আলো

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.