আলোচিত সংবাদ
সত্যের কথা বলে

চিকিৎসকের নেই কোনো সনদপত্র,তবুও তিনি সার্জারি-মেডিসিন বিশেষজ্ঞ।

চিকিৎসকের নেই কোনো সনদপত্র। তারপরও সার্জারি, হাড়ভাঙা, ব্যথা ও মেডিসিন রোগের বিশেষজ্ঞ হিসেবে চেম্বার খুলে প্রাইভেট রোগী দেখছিলেন এস এম এনাম হোসেন মুজাক্কির নামের এক ‘ভুয়া চিকিৎসক’।

এমন অভিযোগে বুধবার (৯ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৪টায় সিলেটের কানাইঘাটের সড়কের বাজারে ভিলেজ ফর হেলথ মেডিকেল হল নামের ওই প্রাইভেট চেম্বারে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালানো হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও প্রথম শ্রেণির ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ বারিউল করিম খান এ অভিযান পরিচালনা করেন।

এ সময় ওই ভুয়া চিকিৎসককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা এবং ওই চেম্বার সিলগালা করে দেয়া হয়েছে।

স্থানীয় লোকজন জানান, সড়কের বাজারে ভিলেজ ফর হেলথ মেডিকেল হল নামে চেম্বার খুলে কোনো ধরনের চিকিৎসকের সনদপত্র ছাড়াই বিভিন্ন রোগের অভিজ্ঞ চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে রোগীদের চিকিৎসা দিয়ে আসছিলেন এস এম এনাম হোসেন মুজাক্কির।

এমন সংবাদের প্রেক্ষিতে বিকেল ৪টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ বারিউল করিম খান, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. আবুল হারিছকে নিয়ে কথিত এ ডাক্তারের চেম্বারে যান। এ সময় এনামকে তার চিকিৎসা সনদপত্র দেখতে চাইলে তিনি তার কোনো চিকিৎসকের সনদপত্র দেখাতে পারেননি।

অভিযানের তথ্য নিশ্চিত করে কানাইঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ বারিউল করিম খান জানান, ২০১০ সালের বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যান্ড ডেন্টাল আইনে ভুয়া চিকিৎসকে বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। এছাড়া ৫০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। চেম্বারটিও সিলগালা করে দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

সোহাগ / ১০-০৯-২০২০/ আলোচিত সংবাদ।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.