আলোচিত সংবাদ
সত্যের কথা বলে

বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা সিরিজ হবে তো?

অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের শ্রীলঙ্কা সফর। কোয়ারেন্টিন ১৪ দিন হবে নাকি ৭ দিন হবে, এই নিয়ে দুই বোর্ডের মধ্যে রয়েছে মতানৈক্য। সিদ্ধান্ত জানা যাবে দু’এক দিনের মধ্যে। বোর্ড পরিচালক নাইমুর রহমান দূর্জয় আভাস দিলেন, বাতিল হতে পারে সিরিজটি। তিনি আরো জানান, শেষ পর্যন্ত সফরটি হলেও, হাই পারফরমেন্স ইউনিট বা এইচপি দল যেতে পারবে না শ্রীলঙ্কা সফরে।

শেষ পর্যন্ত হচ্ছে তো টাইগারদের লঙ্কা সফর? নাকি সব পরিকল্পনাই ভেস্তে যাচ্ছে?
হঠাৎ করেই নানা ইস্যুতে বেঁকে বসেছে শ্রীলঙ্কান স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। বিসিবি আর এসএলসি, ক্রিকেটারদের এক সপ্তাহের কোয়ারেইন্টাইনের ব্যাপারে একমত হলেও দেশটির স্বাস্থ্য বিভাগ কোনভাবেই ১৪ দিনের কমে রাজি নয়। এমনকি কোয়ারেইন্টাইনকালীন কাউকেই সুযোগ দেয়া হবে না কোন ধরণের অনুশীলনের। গুঞ্জণ উঠেছে, শেষ পর্যন্ত দ্বীপরাষ্ট্রটি এমন গোঁ ধরে বসে থাকলে, বাতিলই হতে যাচ্ছে লঙ্কা সফর।
বিষয়গুলো নিয়ে রোববার (১৩ সেপ্টেম্বর) জরুরি সভায় বসেছেন বিসিবির বেশ কয়েকজন কর্তাব্যক্তি। সেখানেও আসেনি কোন সিদ্ধান্ত।
এ বিষয়ে বিসিবি পরিচালক নাইমুর রহমান দূর্জয় বলেন, দুই দেশের বোর্ড সম্মত হয়েছিল যে, ৭ দিনের কোয়ারেন্টাইন হবে। এখন সেটা তারা ১৪ দিন বলছে। আগে কথা ছিল, কোয়ারেন্টিনে থাকা অবস্থায় আমরা প্র্যাকটিস করতে পারবো। এখন সেটাতেও বাধা দিচ্ছে তারা। সুতরাং আমাদেরকে নতুন করে ভাবতে হচ্ছে। আমরা আমাদের অবজারভেশনগুলো তাদেরকে জানাচ্ছি।
এখানেই শেষ নয়। জাতীয় দলের সঙ্গে যাচ্ছে এইচপির বিশাল বহর। কোচিং স্টাফ, গণমাধ্যমসহ যে সংখ্যাটা হতে পারে শতাধিক। এতো বেশি লোকের সমাগমেও অনীহা শ্রীলঙ্কার। তাইতো শেষ পর্যন্ত ট্যুর হলেও যেতে পারবে না এইচপি দল।
নাইমুর রহমান দূর্জয় বলেন, এইচপির প্রোগ্রামটা আলাদা। ন্যাশনাল টিমের তো সিরিজ। এইচপি’র টা আমরা এখন করতে পারবো কিংবা পরেও করতে পারবো। প্রায়োরিটি তো অবশ্যই ন্যাশনাল টিমের ট্যুর। ন্যালনাল টিমের ট্যুরে কিছু সীমাবদ্ধতা আছে। কারণ সেখানে আমাদের সীমিত সংখ্যক সদস্যকে নিয়ে যেতে পারবো।
এমন অবস্থায় বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা সিরিজের ভবিষ্যত জানা যাবে আজ বিকেলের মধ্যে।
তন্ময়/ ১৪-০৯-২০২০/ আলোচিত সংবাদ ।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.