আলোচিত সংবাদ
সত্যের কথা বলে

ওয়েবসাইটে ভোগান্তি : ডিএসইর জালিয়াতি পায়নি তদন্ত কমিটি

নতুন সফ্টওয়্যার চালুর পর ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ওয়েবসাইটে দেখা দেয়া ভোগান্তির জন্য ডিএসইর ইচ্ছাকৃত ভুল বা জালিয়াতির তথ্য পায়নি নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) গঠিত তদন্ত কমিটি।

 

তদন্তে বেরিয়ে এসেছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের তথ্য ও প্রযুক্তি (আইটি) বিভাগের দুর্বলতা ও না বোঝার কারণে ওয়েবসাইট ওই ভোগান্তি হয়েছিল। গত ১৮ আগস্ট আপডেট ভার্সনের ওয়েবসাইট উদ্বোধন করে ডিএসই।

উদ্বোধনের পরে ১৯ ও ২০ আগস্ট ওয়েবসাইটে নানা ধরনের ভোগান্তিতে পড়েন বিনিয়োগকারীরা। এ নিয়ে দেশের বেসরকারি একটি পত্রিকায়  দুটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়।

এরপর বিষয়টি তদন্তে ২৪ আগস্ট ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও সিএসই বিভাগের চেয়ারম্যান ড. মো. মুস্তাফিজুর রহমানকে আহ্বায়ক করে কমিটি গঠন করে বিএসইসি।

তদন্ত কমিটিতে সদস্য হিসেবে রাখা হয়- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও আইসিটি সেলের পরিচালক ড. মুহাম্মদ আসিফ হোসাইন খান, আইআইটি বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. শরিফুল ইসলাম, বিএসইসির পরিচালক রাজিব আহমেদ, উপ-পরিচালক মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম ও সহকারি পরিচালক মো. শহিদুল ইসলামকে।

তদন্ত কমিটি ১৪ সেপ্টেম্বর বিএসইসিকে রিপোর্ট জমা দিয়েছে। ১০০ পৃষ্ঠার এই তদন্ত রিপোর্টে ডিএসইর আইটি নিয়ে অনেক সমস্যার তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। ডিএসইর আইটিতে বড় ধরনের দুর্বলতার তথ্য তুলে ধরে বেশ কিছু সুপারিশও করেছে তদন্ত কমিটি।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, তদন্ত কমিটি ডিএসইর ওএমএস থেকে শুরু করে আইটি বিভাগের অদক্ষ জনবলসহ বিভিন্ন সমস্যা খুঁজে পেয়েছে। এখন ওইসব সমস্যা কমিশনকে ঠিক করতে হবে। আগামী ১ সপ্তাহের মধ্যে ডিএসইর বোর্ডকে ডেকে একটি প্রেজেন্টেশন করে সমস্যাগুলো তুলে ধরা হবে এবং দ্রুত সমাধানের জন্য বলা হবে।

আইটি বিভাগে বড় ধরনের দুর্বলতা ও দক্ষ জনবলের অভাবের তথ্য তুলে ধরা হলেও, নতুন সফ্টওয়্যার চালুতে লেনদেনে সমস্যার ক্ষেত্রে ইচ্ছাকৃত কোনো ভুল বা অনিয়ম পাওয়া যায়নি বলে তদন্ত প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে বিএসইসির দায়িত্বশীল এক কর্মকর্তা বলেন, ডিএসইর আইটি বিভাগের দুর্বলতা ও কাজ না বোঝার কারণে লেনদেনে ভোগান্তি হয়েছিল। অন্যরা যা বুঝিয়ে দিয়ে যায়, ডিএসইর আইটি বিভাগ তাই করে। তবে কোনো জালিয়াতি করেনি। জ্ঞান, অভিজ্ঞতা ও শিক্ষার ঘাটতির কারণে এমনটি হয়েছিল। তাদের চেয়ে অন্যলোকের জ্ঞান বেশি। তারা যা বুঝিয়ে দিয়ে যায়, ডিএসই বোকার মতো তাই করে।

স্বপ্ন রোজ /১৫-০৯-২০২০/ আলোচিত সংবাদ।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.